Tuesday, 22 September 2015

জেনে নিন রাত জাগার উপকারিতা

জেনে নিন রাত জাগার উপকারিতা!
২০১৫ সেপ্টেম্বর ২২ ০১:৪২:২৭

ঘুমোতে যেতে রাত বেশি হয়ে যায়? কাজের ধরণভেদে অনেককে রাত জাগতে হয় কিংবা ঘুমোতে দেরী করতে হয়। সাধারনত বলা হয় রাত জাগাটা শরীর আর মনের জন্যে অনেক বেশি খারাপ। প্রতিরাতে নির্দিষ্ট একটা সময় বিশ্রাম শরীরকে দিতে হয়ই। কথাটা কিছুটা সত্যি। কিন্তু পুরোপুরি নয়! রাত জাগার যেমন আছে বাজে দিক, তেমনি আছে কিছু ভালো ব্যাপারও। জেনে নিন রাত জাগার এমনই কিছু উপকারিতা।

নতুন সব সৃষ্টি

সারাটা দিন চারপাশে থাকে প্রচন্ড কোলাহল, ব্যস্ততা আর কাজের হুড়োহুড়ি। কিন্তু দিন শেষে রাতটা নেমে আসে অনেক বেশি নিঃস্তব্ধ আর শান্ত হয়ে। ফলে শান্ত এই পরিস্থিতিতে মানুষের মন পায় নিজের মতন করে ভাবার কিছু একান্ত সময়। নতুন নতুন সব উদ্ভাবনগুলোও এসময়েই ঘুরপাক খেয়ে যায় মানুষের মাথায়। ফলে তৈরি হয় একেবারেই নতুন কিছু।

নিজেকে সময় দেওয়া

রাতের বেলা মানুষ একলা হয়ে পড়ে। নিজের মতন করে কাটাতে পারে সময়। সারাটা দিন তার চারপাশে থাকে হাজারটা মানুষ। রাতেই সে সময় পায় শুধু নিজের সঙ্গকে উপভোগ করার। অনেক দিন ধরে ফেলে রাখা কোন বই, নতুন কোন খাবার, নতুন কোন চলচ্চিত্র বা খেলা- এসব কিছুকে উপভোগ করতে পারে সে, দৈনন্দিন জীবনের কোলাহলে যেগুলো একেবারেই সম্ভবপর হয়ে ওঠে না।

দ্রুত কাজ করা

যেহেতু রাতের বেলা কাজে বাধা দেওয়ার মতন কেউ থাকেনা, কোন শব্দ কিংবা পরিস্থিতিও না, ফলে সবার পক্ষে অনেক সহজ হয় নিজের হাতের কাজের দিকে পুরোটা মনযোগ দেওয়া। আর পুরোটা মনযোগ একদিকে থাকার ফলে কাজগুলোও শেষ হয়ে যায় অনেক দ্রুত।

চারপাশকে নতুন করে জানা

আপনি হয়তো একই স্থানে বাস করছেন অনেক দিন। পুরোটাই আপনার চেনা- পরিচিত। কিন্তু রাতের বেলা বারান্দায় গিয়ে দাঁড়ান। দেখবেন একেবারেই পাল্টে গিয়েছে আপনার চারপাশের পুরোটা শহর। নতুন করেই নিজের থাকার জায়গাটাকে চিনতে, জানতে আর ভালোবাসতে পারেন আপনি।

বুদ্ধিমত্তার পরিমাপ

লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকস এন্ড পলিটিকাল সায়েন্সে কর্মরত বিজ্ঞানী শাতোশি কানাজাওয়ার মতানুসারে রাত জাগা মানুষের বৃদ্ধিমত্তা বেশি হয়। তার গবেষণায় তিনি দেখেছেন যেসব শিশুরা বেশি চালাক হয় তারাই পরবর্তী জীবনে রাত জাগার অভ্যাস তৈরি করে ফেলে। তবে তার মানে এই নয় যে তারা সবসময় বেশি সফল হয়। সুত্রে-অনলাইন